bangladesh-29283-%E0%A6%86%E0%A6%B0%E0%A6%93-%E0%A7%A8-%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A6%96-%E0%A6%B0%E0%A7%8B%E0%A6%B9%E0%A6%BF%E0%A6%99%E0%A7%8D%E0%A6%97%E0%A6%BE-%E0%A6%86%E0%A6%B8%E0%A6%A4%E0%A7%87-%E0%A6%AA%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A7%87-%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%82%E0%A6%B2%E0%A6%BE%E0%A6%A6%E0%A7%87%E0%A6%B6%E0%A7%87 আরও ২ লাখ রোহিঙ্গা আসতে পারে বাংলাদেশে

আরও ২ লাখ রোহিঙ্গা আসতে পারে বাংলাদেশে

প্রকাশ | ১৪ নভেম্বর ২০১৭, ১৬:৫৮ | আপডেট: ১৪ নভেম্বর ২০১৭, ১৬:৫৯

অনলাইন ডেস্ক

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে পরিস্থিতির কোনো উন্নতি না হওয়ায় আসছে সপ্তাহগুলোতে আরও দুই লাখ রোহিঙ্গা প্রাণ বাঁচাতে পালিয়ে বাংলাদেশে আসতে পারে।ইন্টারন্যাশনাল রেসকিউ কমিটির (আইআরসি) সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় এ আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে।

সমীক্ষায় বলা হয়, বর্তমানে বাংলাদেশে নতুন করে আসা প্রায় ছয় লাখ রোহিঙ্গাসহ সংকীর্ণ স্থানে কমপক্ষে ১০ লাখ মানুষ অবস্থান  করছে। রাখাইনে নির্যাতন পরিস্থিতির এখনও কোনো উন্নতি না হওয়ায় আগামী সপ্তাহগুলোতে আরও প্রায় দুই লাখ রোহিঙ্গা নতুন  করে কক্সবাজারে আসতে পারে।

কক্সবাজারের উখিয়া ও কুতুপালং এলাকার ক্যাম্পে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের পুষ্টিমান-সংক্রান্ত বিষয়ে আইআরসির এ সমীক্ষায়  আরও বলা হয়, ক্যাম্পগুলোতে প্রায় ৯৫ শতাংশ মানুষ দূষিত পানি পান করছে এবং প্রায় শতভাগ মানুষ পর্যাপ্ত খাবার না পাওয়ার  কারণে পুষ্টিহীনতার শিকার হচ্ছে।

আইআরসির জরুরি কর্মকাণ্ড বিষয়ক পরিচালক ক্যাট ম্যাহনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় শুধু অপুষ্টি আর দূষিত পানির সমস্যাই নয়; বরং সার্বিক স্বাস্থ্যগত পরিস্থিতি বড় ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে।’

দ্রুত এ ঝুঁকি নিরসনে উদ্যোগ নেওয়া না হলে মানবিক বিপর্যয়ের মতো পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন  তিনি।

উল্লেখ্য, বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ রাখাইনে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর দমন অভিযান শুরুর পর গত ২৫ আগস্ট থেকে অন্তত ছয় লাখ রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে; যা এখনও অব্যাহত রয়েছে।

রোহিঙ্গাদের ওপর এই সহিংসতাকে ‘জাতিগত নির্মূল অভিযান’ হিসেবে চিহ্নিত করে এর সমালোচনা করে আসছে জাতিসংঘ।

সাহস২৪.কম/খান/আল মনসুর