bangladesh-law-and-rights-15594 সোনালী ব্যাংকের এমডি প্রদীপের সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক

সোনালী ব্যাংকের এমডি প্রদীপের সম্পদ অনুসন্ধানে দুদক

প্রকাশ : ০৭ জানুয়ারি ২০১৭, ১৩:১৫

সাহস ডেস্ক

সোনালী ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রদীপ কুমার দত্তের সম্পদ অনুসন্ধানে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বিভিন্ন ধরনের সম্পদের খোঁজে সংস্থাটি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে। এর অংশ হিসেবে পুঁজিবাজারে প্রদীপ দত্তের কোনো বিনিয়োগ আছে কি-না তা জানতে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনে (বিএসইসি) চিঠি দিয়েছে তারা। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা যায়। 

সূত্র মতে, গেল বছর ২৭ অক্টোবর দুদক আলোচিত বিষয়ে বিএসইসিকে চিঠি দেয়। চিঠিতে প্রদীপ কুমার দত্ত, তার স্ত্রী অর্পিতা দত্ত, ছেলে প্রাঞ্জল দত্ত ঐশিক ও প্রাঙ্গন দত্ত অর্ঘের নামে পুঁজিবাজারে কোনো বিনিয়োগ থাকলে তা জানাতে বলা হয়। এই চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে বিএসইসি সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিডিবিএল), ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই), চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই), সকল মার্চেন্ট ও  ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশে (আইসিবি) চিঠি দেয় বিএসইসি।

ডিএসইর তথ্য অনুযায়ী, র্যা পিড সিকিউরিটিজ লিমিটেড, হ্যাক সিকিউরিটিজ লিমিটেড, নূর-ই-আলম ছিদ্দিকী এন্ড কোম্পানি লিমিটেড, সালাম এন্ড কোম্পানি লিমিটেডে প্রদীপ দত্ত ও তার স্ত্রীর বিনিয়োগ হিসাব রয়েছে। চলতি বছরের ১ জানুয়ারি এ সংক্রান্ত একটি চিঠি দুদককে দিয়েছে বিএসইসি। 

প্রসঙ্গত, চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ায় সম্প্রতি অবসরে যাওয়া প্রদীপ কুমার দত্ত ১৭ জুন ২০১২ থেকে ১৬ জুন ২০১৬ পর্যন্ত সোনালী ব্যাংকের এমডি ও সিইও হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এর মধ্যে নিয়মিত ১ বছর ১১ মাস ও চুক্তিভিত্তিক ৪ বছর- সব মিলিয়ে মোট ৫ বছর ১১ মাস তিনি ব্যাংকটির প্রধান নির্বাহীর দায়িত্বে ছিলেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত