হতে পারে দুই প্রদেশ?

প্রকাশ : ০৮ নভেম্বর ২০১৬, ১৪:১২

একটি দেশের উন্নয়ন নির্ভর করে দেশটির সার্বিক উন্নতির উপর। আমরা বাস্তবিক পক্ষে সার্বিক ভাবে সফলতা আর ব্যর্থতার টানাপোড়নের মধ্যে আছি। মাত্রারিক্ত জনসংখ্যার এই দেশে সুপরিকল্পনার অভাবে আমরা অধিকাংশ জনগণ ভুক্তভোগী। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ আজ হারিয়ে যাচ্ছে অপ্রত্যাশিত হাজারো সমস্যার অতলে। 

উদারণস্বরূপ- ট্রাফিক জ্যামের মত একটি আতঙ্কে জড়িত আমরা। এই আতঙ্কের কারণে লক্ষ মানুষের গুরুত্বপূর্ণ সময় নষ্ট হচ্ছে, কাজে ব্যাঘাত ঘটছে, পরীক্ষার হলে ছাত্ররা সময়মত পৌছাতে পারছে না এমন কী হাসপাতালে পৌছাতে না পাড়ায় রোগীর মৃত্যু পর্যন্ত ঘটছে। তার একমাত্র এবং শুধুমাত্র কারণ রাজধানীর উপর জনচাপ। 

একটু সুদূর প্রসারীভাবে ভাবলে এভাবে ভাবা যায় যমুনা সেতুর এপাড় ওপাড় নিয়ে। বাংলাদেশের ৬৪টি জেলার ৩২টি যমুনার এপারে এবং ৩২টি ওপারে। এই নিয়ে দুটি প্রদেশ করা যেতে পারে। আর মূল লক্ষ্য বস্তু হতে পারে শুধু সুযোগ সুবিধাগুলো দুই প্রদেশে সমানভাবে ভাগ করে দেয়া। দেশের সব প্রান্ত থেকে মানুষ চিকিৎসার জন্য এমনকী বিয়ের বাজার করতেও রাজধানীতে আসে। চট্টগ্রাম থেকে কিন্তু আসে না। কারণ চট্টগ্রাম দেশের দ্বিতীয় রাজধানী নামে খ্যাত। এখন যদি বিচার ব্যবস্থার সুষ্ঠ সমবন্টন, শিল্প কারখানা, হাসপাতালসহ চিকিৎসার সকল সুযোগ সুবিধা এবং বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অন্তত যদি বিভাগগুলোতে সমানভাবে ভাগ করে দেওয়া যায়, তাহলে দেশের ১৬ কোটি মানুষই সুবিধা প্রাপ্ত হয়ে বেঁচে থাকতে পারে।

এখন ঢাকার যে অবস্থা, ট্রাফিক জ্যামের কারণে আমরা মূলত জোর করে বসবাস করছি জীবনের তাগিদে, এভাবে চলতে থাকলে আমাদের সোনার দেশ গড়ার স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যাবে। বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন সোনার বাংলাদেশ গড়তে। কিন্তু তার প্রতিফলন আমরা দেখতে পাচ্ছি না শুধু একটা সু-পরিকল্পিত চিন্তার অভাবে। 

আমরা সবাই জানি এটা অনেক দীর্ঘমেয়াদী আর সুদূরপ্রসারী কিন্তু অসম্ভব তো নয়। পরবর্তী কয়েক প্রজন্ম পর হলেও তো তারা দেখতে পাবে সোনার বাংলাদেশ, স্বপ্নের বাংলাদেশ। 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত