x

এইমাত্র

  •  ‘অপারেশন টোয়ালাইট’ সমাপ্ত ঘোষণা
  •  বৃষ্টির কারনে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ২য় ওয়ানডে ম্যাচ পরিত্যক্ত

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং অনালাইন ক্যারিয়ারে একটি নতুন সম্ভাবনা

প্রকাশ : ১৫ অক্টোবর ২০১৬, ১৬:১০

ইন্দ্রজিৎ মণ্ডল

ছানাউল মাওলা সুফিয়ান শুরু করেছিলেন ইমেইল মার্কেটিং দিয়ে, কিন্তু এখন তার পরিচয় দেশের অন্যতম একজন আইটি উদ্যোক্তা ও ডিজিটাল মার্কেটার। তিনি প্রতিষ্ঠা করেন দেশের বেকার জনগোষ্ঠীকে অনলাইন ক্যারিয়ারে সফল করার জন্য আইটি ট্রেইনিং এবং আইটি বিষয়ক প্রতিষ্ঠান সফটটেক আইটি। তিনি বর্তমানে কাজ করছেন অ্যাফিলিয়েট এবং ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে।

অ্যাফিলিয়েট এবং ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের নানা বিষয় নিয়ে সাহস২৪.কম এর সাথে কথা বলেন তিনি। তাঁর সাথে কথোপকথনে ছিলেন ইন্দ্রজিৎ মণ্ডল।

সাহস: শুরুতেই জানতে চাই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কী?
সুফিয়ান: অ্যাফিলিয়েট - অন্যের পণ্য বা কোনো প্রতিষ্ঠানের পণ্য ও সেবা প্রচারণার মাধ্যমে বিক্রি করতে সহায়তা বা বিক্রি করার পদ্ধতি হল অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। আর পন্য বা সেবা বিক্রি হবার পর এর কমিশন আপনাকে দিবে আপনার মার্চেন্ট / অ্যাফিলিয়েট নেটওয়ার্ক / আপনি যার পণ্য বিক্রি করছেন তিনি - এই পুরো প্রক্রিয়াটিই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। সহজে বলতে গেলে, আপনি কোন প্রতিষ্ঠান বা ব্যাক্তির পণ্য মার্কেটিং করে বিক্রির পর আপনাকে ঐ প্রতিষ্ঠান বা ব্যাক্তি যে কমিশন প্রদান করবে - এই কমিশন আয়ের পুরো মাধ্যমটাকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বলা যাবে

সাহস: অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং / ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে সম্ভাবনা কেমন?
সুফিয়ান: বাংলাদেশের তরুণদের কাছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং খুব একটা পরিচিত নাম না হলেও - এ খাতে রয়েছে সম্ভাবনাময় উজ্জল ক্যারিয়ার । আর অনলাইন ক্যারিয়ারে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংটা আসলে খুব বিশাল একটা ইন্ডাস্ট্রি। আর যে কেউ এই ইন্ডাস্ট্রিতে ধৈর্য ধরে লেগে থাকলে ভাল আয় করা সম্ভব। বর্তমানে যারা এসইও (সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন), ইমেইল মার্কেটিং , আর্টিকেল রাইটিং, ডিজিটাল মার্কেটিং করছেন তারা এই সেক্টরে ভাল করার সম্ভাবনাটা অনেক বেশী রাখেন এবং আয়ের দিক থেকেও অ্যাফিলিয়েশনে আয়ের কমতি নেই ও সম্ভাবনা রয়েছে অনেক। বাংলাদশের ছেলে মেয়েরা ইংরেজিতে যারা ভাল তাদের জন্য এক অদ্বিতীয় আয়ের উৎস । তবে ইংরেজিতে আপনি যদি ভাল হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ।

সাহস: আপনি এই পেশায় কিভাবে এলেন?
সুফিয়ান: অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং / ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে বা উদ্যোক্তা হওয়ার আগে আমার আগ্রহ ছিল কম্পিটার হার্ডওয়ার এর প্রতি, একটা সময় কম্পিউটার সার্ভিসিং শুরু করি এর পাশাপাশি সাইবারক্যাফেতে ইন্টারনেটে প্রচুর সময় দিতাম এক পর্যায়ে জানতে পারি অনলাইন এ আয় করার বিষয়টি। তার পর থেকে ইন্টারনেটে সময় দেয়াহত শিখার জন্য এবং প্রচুর টিউটোরিয়াল দেখা হয়, এর পাশা পাশি কিছু প্রাথিস্থানিক শিক্ষাও নেই কাজের সুবিদারথে। এই কাজ করতে করতে এক পর্যায়ে মনে হল সব সময় কাজ খোঁজা এই বিষয়টা কিভাবে বাদ দেয়া যায়, তারপর এই পেশায় কাজ করা শুরু করা।

সাহস: অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে আসতে হলে কী কী বিষয়ে প্রাথমিক ধারণা থাকতে হবে?
সুফিয়ান: অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং যেহেতু সম্পূর্ণ মার্কেটিং এবং টেকনিক্যাল কাজ। তাই সবার প্রথমে কম্পিউটারের বেসিক জ্ঞানের পাশপাশি জানতে হবে ইংরেজি বুজা,লিখতে পারা, এবং কিছুটা মাকেটিং সেন্স। তারপর জানতে হবে আর্টিকেল রাইটিং, ইমেইল মার্কেটিং এসইও, কিছুটা ওয়েব ডিজাইন ও ওয়েব ডেভেলপমেন্ট আর থাকতে হবে প্রচুর পরিমাণে ধৈর্য ।

সাহস: এখান থেকে কেমন আয় করা সম্ভব?
সুফিয়ান: অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এ আসার আগে আপনাকে প্রচুর পরিমাণে শিখতে হবে - এই বিষটা মাথায় নিতে হবে আর আয়ের ক্ষেত্রটা অনেক । অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং থেকে আপনি খুব কম সময় দিয়ে আনেক বেশী পরিমাণে আয় করতে পারবেন। যেহেতু আপনাকে পণ্য তৈরি এবং বাজারজাত করতে হয় না । আপনার কাজ হচ্ছে এনালাইসিস করে ধৈর্য নিয়ে মার্কেটিং ট্রাম তৈরি করা আর মার্কেটিং করা। আর আপনার মাধ্যমে যে পণ্য বিক্রি হবে সেই পণ্যর কমেশন আপনি পাবেন। তবে প্রথম দিকে আয়ের দিক থেকে ২০০ থেকে ৫০০ ডলার আয় করা সম্ভব। আর আসতে আসতে এই আয়টা নির্ভর করবে আপনি কতটা পরিশ্রম করছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত