women-25621-%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD-%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD-%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD-%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD-%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD-%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD%EF%BF%BD ইউএনও’র উদ্যোগে কিশোরীদের কুংফু কারাতে প্রশিক্ষণ

ইউএনও’র উদ্যোগে কিশোরীদের কুংফু কারাতে প্রশিক্ষণ

প্রকাশ | ১৯ আগস্ট ২০১৭, ১১:৪২

তপু আহম্মেদ

‘আত্মরক্ষার্থে, শিখি কুংফু কারাতে’ এই স্লোগান নিয়ে মির্জাপুরে শুরু হলো কিশোরীদের আত্মরক্ষণের কৌশল শিক্ষণ প্রশিক্ষণ।

শুক্রবার সকালে উপজেলা সদরের পাইলট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় মাঠে ইউএনও ইসরাত সাদমীন এই কুংফু কারাতে প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন। 

উপজেলা কন্যা সাহসিকা সেলের অধিনে ইউএনও ইসরাত সাদমীনের পরিকল্পনা ও উদ্যোগে এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়। এ উপলক্ষে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

সভায় বক্তৃতা করেন ইউএনও ইসরাত সাদমীন, মানবাধিকার কর্মী মাহমুদা শেলী, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. খলিলু রহমান, মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেন মোল্লা, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. সুলতান উদ্দিন ও বিদ্যালয় পরিচালনা পরিষদের সদস্য মো. আনোয়ার হোসেন প্রমুখ। 

প্রশিক্ষণে অংশ নিতে আসা নবম শ্রেণির ছাত্রী তমালিকা সরকার, অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী মাহমুদা আক্তার, সুমাইয়া ও সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ভাবনা আক্তার প্রশিক্ষণের বিষয়ে বলে, এই প্রশিক্ষণ তাদের বাস্তব জীবনে অনেক কাজে দিবে। প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করায় তারা ইউএনও ইসরাত সাদমীনের প্রতি কৃতজ্ঞা প্রকাশ করে। প্রশিক্ষণের প্রথম দিনে অর্ধশতাধিক কিশোরী প্রশিক্ষণে অংশ নেয়। প্রশিক্ষক দেন ব্লাকবেল্ট হোল্ডার খন্দকার সাব্বির হোসেন। 

ইউএনও ইসরাত সাদমীন বলেন, মেয়েদের আত্মরক্ষা এবং তাদের মধ্যে আত্মবিশ্বাসী মনোভাব গড়ে তোলার লক্ষে উপজেলা কন্যা সাহসিকা সেলের আওতায় এই প্রশিক্ষণের আয়োজন করা হয়েছে।

প্রতি শুক্রবার এই বিদ্যালয় মাঠে এসে যে কোন কিশোরী বিনা পয়সায় প্রশিক্ষণ নিতে পারবেন বলে তিনি জানান।