world-26678-%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A6%89%E0%A6%9C%E0%A6%BF%E0%A6%B2%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A1%E0%A7%87-%E0%A6%AE%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A7%80%E0%A6%B0-%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%9F-%E0%A6%96%E0%A7%8B%E0%A6%B2%E0%A6%BE-%E0%A6%AD%E0%A6%BE%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%95%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%AF-%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A6%AF%E0%A6%BC%E0%A7%87-%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%A4%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%95 নিউজিল্যান্ডে মন্ত্রীর প্যান্ট খোলা ভাস্কর্য নিয়ে বিতর্ক

নিউজিল্যান্ডে মন্ত্রীর প্যান্ট খোলা ভাস্কর্য নিয়ে বিতর্ক

প্রকাশ | ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১:১৩

অনলাইন ডেস্ক

প্যান্ট খুলে প্রকাশ্যে মলত্যাগ করছেন- এমন ভঙ্গীতে তৈরি করা নিউজিল্যান্ডের পরিবেশ মন্ত্রীর একটি ভাস্কর্য ক্রাইস্টচার্চের এক কাউন্সিল অফিসের স্থাপনের পর এ নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

পরিবেশ মন্ত্রী নিক স্মিথের এই ভাকর্যটি তৈরি করেছেন শিল্পী স্যাম মেহন। নিক স্মিথের প্যান্ট তার গোড়ালির কাছে, তার পুরুষাঙ্গ দেখা যাচ্ছে। তিনি এক গ্লাস পানির মধ্যে মলত্যাগ করছেন।

নিউজিল্যান্ডের সরকার নদী এবং হ্রদের পানির মান রক্ষার জন্য যে নতুন নীতি নিয়েছে, তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ হিসেবে শিল্পী এই মূর্তিটি তৈরি করেছেন। সমালোচকরা বলছেন, সরকারের এই নীতি খুবই শিথিল। এতে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার মাধ্যমে পানি দূষিত হওয়ার আশংকা আছে।

পরিবেশবাদীদের এই প্রতিবাদ বন্ধ করার জন্য পরিবেশ দফতর বেশ কিছু ব্যবস্থা নিয়েছিল। আদালত নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল যে এই ভাস্কর্যটি পরিবেশ দফতরের সামনে স্থাপন করা যাবে না।

কিন্তু পরিবেশবাদীরা এরপর এই ভাস্কর্যটি স্থাপন করে একটি ফুটপাথে।

এই প্রতিবাদকে খুবই 'স্থূল' বলে যে সমালোচনা হচ্ছে, তার উত্তরে শিল্পী স্যাম মেহন বলেন, যদি আপনি কোন রাজনৈতিক বিষয় সম্পর্কে মন্তব্য করতে চান, সেটি চিনি মাখিয়ে বলবেন। আমি এই আইডিয়াটা আসলে পেয়েছি মন্ত্রী আমাদের সঙ্গে যা করছেন সেখান থেকে। যদি এটি দেশে দুপক্ষের লোকজনই হাসাহাসি করেন, তাহলেই আমি বুঝবো তারা ওষুধটা গিলেছেন।

মন্ত্রী অবশ্য এই ভাস্কর্যকে একেবারেই স্থূল ব্যাপার বলে বর্ণনা করেছেন। তবে তিনি বলেছেন, এটিকে তিনি খুব বেশি পাত্তা দিচ্ছেন না।