ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর ঘাড়েই নিঃশ্বাস ফেলে ৭ কোটি পাউন্ডের অপেক্ষায় টটেনহ্যাম

প্রকাশ : ১৩ মে ২০২২, ১৬:১৪

সাহস ডেস্ক

আগামী চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলার আশা বাঁচিয়ে রাখতে হলে এ ম্যাচে জিততেই হবে, এমন সমীকরণ ম্যাচে জ্বলে উঠেছেন হ্যারি কেইন। তার জোড়া গোলে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্সেনালকে হারিয়ে ইউরোপের বড় আসরে খেলার স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখল টটেনহ্যাম হটস্পার। একই সাথে ৭ কোটি পাউন্ডেরও অপেক্ষায় থাকল ক্লাবটি। তবে বাধা এখনো কাটেনি টটেনহ্যামের।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) দিবাগত রাতে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে টটেনহ্যাম হটস্পার স্টেডিয়ামে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্সেনালকে ৩-০ গোলে হারিয়ে তাদের ঘাড়েই চেপে বসেছে অ্যান্তেনিও কন্তের দল। দলের হয়ে জোড়া গোল করেছেন হ্যারি কেইন এবং বাকি গোলটি করেছেন সন ইউং-মিং।

চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলতে হলে লিগে পয়েন্ট তালিকার চারে থাকবে হবে। টটেনহ্যাম অবশ্য পাঁচ নম্বরে আছে, এক পয়েন্ট বেশি নিয়ে চারে আছে আর্সেনাল। লিগে বাকি আছে আর দুই ম্যাচ। গানাদের টপকে টটেনহ্যাম যদি সেরা চারে থাকতে পারে তাহলে পুরস্কার হিসেবে ৭ কোটি পাউন্ড পাবে ক্লাব। এই ম্যাচটি হেরে গেলে ৭ কোটি পাউন্ড তো দুরের কথা আগামী চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলার স্বপ্নটাই শেষ হয়ে যাবে টটেনহ্যাম হটস্পারের। এমন সমীকরণ নিয়েই ডার্বি ম্যাচে মুখোমুখি হয় টটেনহ্যাম-আর্সেনাল। 

এদিন ম্যাচে উত্তেজনা ছিল চরমে, কিন্তু ম্যাচে হিসেব-নিকেশ কষলেন কেইনরাই। শুরু থেকেই আর্সেনালের বক্সের সামনে উঠে প্রতিপক্ষের পা থেকে বল কেড়ে নিতে ঝাঁপিয়েছেন কেইন-সনরা, তার ফলও এসেছে শুরুতেই। ম্যাচের ২২ মিনিটে বক্সে সনকে ফাউল করেন আর্সেনাল ডিফেন্ডার সেদরিক, পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পট কিক থেকে ঠান্ডা মাথায় গোল করে দলকে এগিয়ে দেন হ্যারি কেইন।

পরে ম্যাচের ৩৩ মিনিটে আর্সেনালের ম্যাচটা দুঃস্বপ্ন হয়ে যায়। সাত মিনিট আগে সনকে ফাউল করে হলুদ কার্ড দেখা আর্সেনাল ফিফেন্ডার রব হোল্ডিং ৩৩ মিনিটে আবার অবৈধভাবে আটকে দিলেন গোলের দিকে ছুটতে থাকা সনকে। ফলে আবারও হলুদ কার্ড দেখেন হোল্ডিং। দুই হলুদ কার্ডে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হলো রব হোল্ডিংকে। এতে দশ জনের দল হয়ে পড়ল গানারা। এর সুবিধা ভালোভাবেই নিয়েছে হটস্পাররা। তার চার মিনিট পর আবারও হ্যারি কেইনের চমক।

ম্যাচের ৩৭তম মিনিটে কর্নার থেকে সনের শটে মাথা ছোঁয়ান রদ্রিগো, বল যায় কেইনের কাছে। ঝাঁপিয়ে পড়ে হেডে বল জালে জড়িয়ে দলকে আবারও এগিয়ে দিয়ে নিজের জোড়া গোল পূর্ণ করেন হ্যারি কেইন। এরপর প্রথমার্ধের বাকি সময়ে আর কোনো গোল না হলে এই ২-০ গোলে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় টটেনহ্যাম হটস্পার।

বিরতি থেকে ফিরে এসেই আবারও এগিয়ে যায় টাটেনহ্যাম। এবার গোলটি করলেন সন। ম্যাচের ৪৭তম মিনিটে আর্সেনাল বক্সে কেইনকে ট্যাকল করলে ভিড়ের মধ্যে বল এসে পড়ে সনের কাছে, সেখান থেকে দলের জয় সূচক গোলটি করে সন। এ নিয়ে চলতি মৌসুমে তার ২১তম গোল হয়ে গেল। সর্বোচ্চ গোলদাতার দৌড়ে লিভারপুল ফরোয়ার্ড মো. সালাহর ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে সন। সালার ২২ গোল।

ঘরের মাঠে শুরু থেকেই যদিও আর্সেনালকে চেপে ধরেছিল টটেনহ্যাম। তবে সফরকারীরা কম যাচ্ছিল না। আক্রমণ প্রতিআক্রমণ ছিল শুরু থেকেই। যার ফলে বেশ কয়েকবার মাঠে বিবাদে জড়িয়ে পড়ে দুই দলের ফুটবলাররা। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের শেষঅব্দি আর কোনো গোল না হলে এই ৩-০ গোলে আর্সেনালকে হারিয়ে আগামীর চ্যাম্পিয়নস লিগের আশা বাঁচিয়ে রাখল টটেনহ্যাম হটস্পার। হেরে নিজেদের অবস্থান নরবর করে ফেলেছে গানারা।

এই জয়ে ৩৬ ম্যাচে ৬৫ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৫ম স্থানে আছে টটেনহ্যাম হটস্পার। সমান ম্যাচে এক পয়েন্ট বেশি নিয়ে টেবিলে চারে আছে আর্সেনাল। সমান ম্যাচে ৮৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে ম্যানচেস্টার সিটি। সমান ম্যাচে ৮৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয়তে আছে লিভারপুল। আর এক ম্যাচ বেশি খেলা রোনালদোর ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ৬ষ্ঠ স্থানে থেকে আগেই আগামী চ্যাম্পিয়নস লিগ থেকে ছিটকে গিয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
আপনি কী মনে করেন করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের পদক্ষেপ সন্তোষজনক?